সাবেরুলের বালু পয়েন্ট বন্ধ করার ক্ষমতা নেই ; প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে রমরমা ব্যবসা

সাবেরুলের বালু পয়েন্ট বন্ধ করার ক্ষমতা নেই ; প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে রমরমা ব্যবসা

রংপুর ব্যুরো : মন্ত্রী পরিষদের প্রজ্ঞাপণ অমান্য করে রংপুর মহানগরীর ১৩নং ওয়ার্ডের হোলারপুকুর এলাকায় ঘাঘট নদী থেকে নিয়মিতভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। বালু উত্তোলনের ফলে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযানে মামলা ও জরিমানা করলেও বালু উত্তোলন বন্ধ হচ্ছে না। এতে করে ঘাঘট নদীর ভাঙন যেমন বেড়েছে তেমুনি ভাঙনের কবলে পড়ছে কৃষিজমি। এলাকাবাসি বলছেন, সড়কে অব্যাহত বালুবাহী ট্রাক চলাচলে এলাকার প্রধান সড়কটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে।
স্থানীয়রা আরও জানান, হোলারপুকুর এলাকার মৃত মনছুর আলীর ছেলে সাবেরুল ইসলাম ৪বছর ধরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছেন। অনেকবার প্রতিবাদ করেও কোনো প্রতিকার পাওয়া যায়নি। এলাকাবাসি বালু উত্তোলনকালে বাঁশ দিয়ে সড়ক বন্ধ করে রাখা হয়েছিল। এতে এলাকাবাসির স্বাধীন চলাচল ব্যাহত হয়। পরবর্তীতে বালুখেঁকো সাবেরুল গং তার গুন্ডাপান্ডা লেলিয়ে দিয়ে সড়ক থেকে বাঁশের খুঁটি সরিয়ে ফেলে বালু উত্তোলন অব্যাহত রাখেন।
এবিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বালুখেঁকো সাবেরুল জানান, এই বালুর উত্তোলন কেউ ঠেকাতে পারবেনা। কারও কোনো প্রকার ক্ষমতা থাকলে প্রয়োগ করতে পারেন। আপনারা যা ইচ্ছা তাই লিখে সংবাদ প্রকাশ করুন। আমার কিছুই হবেনা এবং কাউকে পরোয়াও করিনা।
সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফজলে এলাহি ফুলু জানান, ইতোপূর্বে স্থানীয়রা বালু উত্তোলনের বিষয়টি জানিয়েছেন। সম্প্রতি ওই স্থানে বালুবাহী ট্রাকের নিচে পড়ে এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়াও নগরীর নজিরের হাটে বালুভর্তি ট্রাকের নিচে পড়ে এক অবসর প্রাপ্ত পুলিশ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ঘঘাট নদীর সবগুলো বালুর পয়েন্ট বন্ধ করা উচিৎ।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া জামান সুমি জানান, অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করছি। বিষয়টি নজরে ছিলোনা তবে শীঘ্রই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
রংপুরের জেলা প্রশাসক আসিব আহসান জানান, বালু উত্তোলনের বিষয়টি আমার জানা ছিলনা। তদন্ত করে বালু উত্তোনকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ডেইলি আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত