শিরোনাম :
বাংলাদেশের সাথে বাণিজ্য বাড়াতে চায় আলজেরিয়া কোন ব্যক্তি ও গোষ্ঠীর স্বার্থ সিদ্ধির জন্য যেন জাতীয় শোক দিবসের পরিবেশ নষ্ট না হয় -ওবায়দুল কাদের করোনায় বড়াইগ্রাম থানার ওসি তদন্ত সুমন আলীর মৃত্যু চাষী আহবায়ক ও বাবু সদস্য সচিব: বিএমএসএফ কুমিল্লা জেলা কমিটি গঠন আগামীকাল জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৫তম শাহাদত বার্ষিকী শ্রীপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধা আমীর আলী সড়কের উপর প্রাচীর নির্মানের অভিযোগ গাজীপুরে মাদক ব্যবসায়ীকে পুলিশে দেওয়ায় পল্লী চিকিৎসককে হত্যার হুমকি ও বাড়িতে হামলা ক্ষুদ্র – নৃ – গোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নে সরকার কাজ করছে : প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী বড়াইগ্রামে জমজমাট শ্রমিকের হাট বনপাড়া পৌর মেয়রের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন পাবনা-২ আসনের এমপি আহমেদ ফিরোজ কবির
রাজারহাটে স্পার বাঁধের সংযোগ সড়ক বিচ্ছিন্ন, হুমকীর সম্মুখীন ১৫টি গ্রাম

রাজারহাটে স্পার বাঁধের সংযোগ সড়ক বিচ্ছিন্ন, হুমকীর সম্মুখীন ১৫টি গ্রাম


মোঃ আরমান হাসান, রংপুর জেলা প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের রাজারহাটে তিস্তা নদীতে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও ভারী বর্ষনে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় তীব্র স্রোতের কারনে নদীর বাম তীর রক্ষা বাঁধের সংযোগ সড়ক বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।
এছাড়া একটি ক্রস বাঁধের সামনের অংশ প্রায় ২০ফিট নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। ফলে হুমকীর সম্মুখীন হয়ে পড়েছে তিনটি ইউনিয়নের ১৫টি গ্রামের সহ¯্রাধিক বাড়িঘর,ফসলি জমি,বুড়িরহাট বাজার,গাবুর হেলান সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়,তৈয়বখাঁ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও আশ্রয়ন ভবন,কালিরহাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাঝাপাড়া বালিকা মাদ্রাসা, বুড়িরহাট মসজিদ, বুড়িরহাট স্পার বাঁধ, তৈয়বখাঁ গ্রামের তিনটি মন্দির সহ অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।
জানা গেছে, আকস্মিকভাবে তিস্তা নদীর ভাঁঙ্গনের কবলে পড়েছে রাজারহাট উপজেলার ঘড়িয়ালডাঁঙ্গা ইউনিয়নে অবস্থিত পানি উন্নয়ন বোর্ডের স্পার বাঁধ। তিস্তা নদীর বাম তীর ঘেষে প্রবাহিত তীব্র স্রোত সরাসরি এই স্পারে এসে ধাক্কা খেয়ে ঘুর্নাবর্তের সৃষ্টি করছে। এতে করে এই ঘুর্ণাবর্তে তল দেশের মাটি তুলে আনছে উপরে।
বালি ভর্তি জিও ব্যাগ ও সিনথেটিক ব্যাগ ফেলে স্পারটি রক্ষার চেষ্টা চললেও শেষ অবধি কোন লাভ হয়নি। গত ৩দিনে বাঁধের সংযোগ সড়কটির প্রায় ৩০/৩৫ফিট জায়গা নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এছাড়া যে কোন মহুুর্তে স্পারটি ভেঁঙ্গে পড়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। তিস্তা নদীর বাম তীরের ঘড়িয়ালডাঁঙ্গা ও বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের বুড়িরহাট,খিতাবখাঁ ও গতিয়াশাম,চরবিদ্যানন্দ,গাবুর হেলান, রামহরি, চতুরা, তৈয়ব খাঁ,কালির মেলা,তৈয়বখাঁ,চতুরা সহ ১৫টি গ্রাম নদী ভাঙ্গন থেকে রক্ষার জন্য প্রায় ৩কোটি টাকা ব্যয়ে প্রায় ২০বছর পূর্বে ১৫০মিটার সলিড স্পারটি নির্মাণ করা হয়েছিল।
এদিকে উপজেলার বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের গাবুর হেলান গ্রামে তিস্তা নদী রক্ষার ক্রস বাঁধটির সামনের অংশ ভাঁঙ্গনের কবলে পড়েছে। ইতোমধ্যে বাঁধটির সামনের দিকে প্রায় ২০ফিট জায়গা নদী গর্ভে চলে গেছে। বাঁধটি রক্ষার জন্য গত কয়েকদিনে প্রায় ২হাজার বালু ভর্তি জিও ব্যাগ ফেলা হলেও কোন কাজ হয়নি।
বুধবার রাজারহাট উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জাহিদ ইকবাল সোহরাওয়ার্দী বাপ্পী ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুরে-তাসনিম সরেজমিনে বুড়িরহাট স্পার বাঁধ ও ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা সরেজমিন পরিদর্শন করেছেন।
জানা গেছে, ইতেমধ্যে নদী ভাঙ্গনে ঘড়িয়ালডাঁঙ্গা ও বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের ২০-২৫টি পরিবার তাদের ভিটে মাটি হারিয়েছে। বুড়িরহাট গ্রামের ভাঁঙ্গনে সর্বশান্ত তৈয়ব আলী (৭০) জানান,“আমার জীবনে বাইশবার বাড়ি ভাঁঙ্গছে,এখন আবার ভাঙ্গলো,এখন আমার আর থাকার মতো কোন জায়গা নাই। আমার আর জমি নাই যে,বাঁন্ধের রাস্তার উপরা ভাঙ্গা চুরা ঘরবাড়ি তুলি আছি”।
কুড়িগ্রাম পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আরিফুল ইসলাম বলেন,“বাঁধটি ভেঙ্গে গেলে ডাংরার দিকে যে এলাাকাগুলো আছে সবগুলো এলাকা নদী ভাঁঙ্গনের কবলে পড়বে এবং মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হবে।
পাশাপাশি অন্যান্য এলাকায় বিশেষ করে আমাদের কালির হাট,বিদ্যানন্দ এবং আরো কিছু এলাকা আছে,যেগুলো এলাকায় নদী ভাঙ্গন আছে,আমরা এগুলোতে জিও ব্যাগ ডাম্বিং করে ভাঁঙ্গন রোধে ব্যবস্থা নিচ্ছি। আমাদের ব্যবস্থা গ্রহণ অব্যাহত থাকবে। আশা করি বালি ভর্তি জিও ব্যাগ ফেলতে পারলে নদী ভাঁঙ্গন রোধ হবে এবং মানুষ নদী ভাঁঙ্গনের হাত রক্ষা পাবে”।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




কপিরাইট © ডেইলি আলোকিত সকাল - সর্বসত্ত্ব সংরক্ষিত